Warranty Policy

ওয়ারেন্টি সেবা গ্রহনের পূর্বে অবশ্যই ক্রেতাদের যা জানতে হবে –

ক্রিয়েটাস কম্পিউটার রিটেইল সেল বা খুচরা বিক্রয় কেন্দ্র। তারা কোন ধরনের পন্য প্রস্তুত করে না। তাই, অর্থাৎ বিক্রিত পণ্যের ওয়ারেন্টির দায়িত্ব নির্মাতা তথা মূল ব্র্যান্ড কোম্পানি বহন করে থাকে। প্রতিটি ব্র্যান্ডের পণ্যের ওয়ারেন্টির শর্তাবলী ভিন্ন ভিন্ন হয়ে থাকে যা নিজ নিজ পন্যের ওয়েবসাইটে পরিষ্কারভাবে উল্লেখ করে রেখেছে। ওয়ারেন্টির ক্ষেত্রে আমরা আন্তরজাতিক(পন্য ভেদে), দেশীয় এবং বাংলাদেশ কম্পিউটার সমিতি (বিসিএস) কর্তৃক প্রদত্ত নীতিমালা অনুসরন করে থাকি মাত্র। পন্যের সরবরাহ এবং সল্পতার উপর ভিত্তি করে ওয়ারেন্টি সম্পন্ন হওয়ার সময়কাল পরিবর্তন হতে পারে।

 

যেসব কারনে পন্য ওয়ারেন্টির আওতায় আসবে না –

  • পন্যের ক্রয় রশিদ, বিল, ইনভয়েস বা কোনরূপ ক্রয়ের প্রমানপত্র না থাকে তবে তা ওয়ারেন্টির আওতায় আসবে না।
  • পন্যের কোন অংশ যদি পুড়ে যায়, ভেঙ্গে যায়, কোন অংশ বসে যায়, টেম্পারিং হয়, লেয়ার কাটা , মরিচা পড়া, বাকা হয়ে যাওয়া, ফাঙ্গাস পড়া, কোন পোর্টে ফাটা দাগ, ফাটা হওয়ার মত দাগ পাওয়া যায় সেক্ষেত্রে তা ওয়ারেন্টির আওতায় আসবে না।
  • পন্যের স্টিকার বা সিরিয়াল নাম্বার উঠে যাওয়া বা অস্পষ্ট অবস্থায় পাওয়া যায় সেক্ষেত্রে তা ওয়ারেন্টির আওতায় আসবে না।
  • ল্যাপটপ/নোটবুক কম্পিউটারের ক্ষেত্রে ব্যাটারি, চার্জার এবং অন্যান্য আনুসাঙ্গিক যন্ত্রাংশের ওয়ারেন্টি ১ বছরের অধিক নয় এবং তা মূল পন্যের ওয়ারেন্টির অন্তর্ভুক্ত নয়।
  • পন্যের কেসিং-এর ভিতরের কোন যন্ত্রাংশ পরিবর্তন এবং সিরিয়াল নাম্বার অমিল পাওয়া যায় সেক্ষেত্রে তা ওয়ারেন্টির আওতায় আসবে না।
  • পন্যের লক বা হুক ভাঙ্গা অথবা খোলার চেষ্টা হয়েছে তা সনাক্ত হয় সেক্ষেত্রে তা ওয়ারেন্টির আওতায় আসবে না।
  • পন্যের স্ক্রিনে যদি স্ক্র্যাচ বা দাগ বেশি পড়া অবস্থায় পাওয়া যায় সেক্ষেত্রে তা ওয়ারেন্টির আওতায় আসবে না।
  • পন্যের কোন যন্ত্রাংশ যদি পোকা-মাকড়ের কারনে কোনরূপ ক্ষয়ক্ষতি বা বিনষ্ট অবস্থায় পাওয়া যায় সেক্ষেত্রে তা অয়ারেন্টির আওতায় আসবে না।
  • পন্যের স্ক্রিনে আঘাতের কারনে কোন গোলাকার বা অর্ধচন্দ্রের অনুরুপ কোন ক্ষতি সনাক্ত হলে তা ওয়ারেন্টির আওতায় আসবে না।
  •  তরল পদার্থের ব্যবহারের কারনে পন্যের কোন ক্ষয়ক্ষতি হয় বা তরল পদার্থ পন্যের ভিতরে প্রবেশ করে তবে তা ওয়ারেন্টির আওতায় আসবে না।
  •  পন্যের অপব্যবহারের ফলে যদি কোন ক্ষয়ক্ষতি হয় তবে তা ওয়ারেন্টির আওতায় আসবে না। 
  • মনিটরের ডেড পিক্সেল (Dead Pixel) বা স্টাক পিক্সেল (Stuck Pixel) এর ওয়ারেন্টি ক্লেইম করতে হলে ন্যূনতম ৩ বা তার অধিক ডেড/স্টাক পিক্সেল দৃশ্যমান হতে হবে।

 

লাইফ টাইম ওয়ারেন্টি পলিসি –

বাজারে প্রচলিত পন্য হিসেবে বিবেচিত হওয়ার সময়কাল পর্যন্ত ঐ পন্যের ওয়ারেন্টি প্রদানকে লাইফটাইম ওয়ারেন্টি বুঝাবে। কোন পন্যের লাইফটাইম ওয়ারেন্টির আওতায় ঐ পণ্যটি মার্কেটে প্রচলিত পন্য হলে, ক্রেতা ওয়ারেন্টি সেবা প্রাপ্ত হবেন। কোন পন্য EOL (End Of Life) হিসেবে গন্য হলে অর্থাৎ যদি পণ্যটির উৎপাদন বন্ধ হয়ে যায় তা আর ওয়ারেন্টির আওতায় আসবে না। পন্যের নতুন ভার্সন বাজারে আসলে তা পুরাতন ভার্সনের সাথে ওয়ারেন্টি সেবা পাবে না। 

 

সার্ভিস ওয়ারেন্টি পলিসি – 

সার্ভিস ওয়ারেন্টির অন্তর্ভুক্ত কোন পন্য ওয়ারেন্টি সীমার মধ্যে থাকলে তা রিপেয়ার করার জন্য কোন বাড়তি মুল্য নেয়া হবে না, তবে যদি কোন যন্ত্রাংশ পরিবর্তন বা সংযোজন করতে হলে সেই যন্ত্রাংশের মূল্য ক্রেতা পরিশোধ করবেন। 

ওয়ারেন্টি সংক্রান্ত বিস্তারিত জানতে কল করুন

01612266514